শিরোনাম
◈ বিশ্ব নেতৃবৃন্দের কাছে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান ইউক্রন-রুশ যুদ্ধ বন্ধ করুন ◈ আইসিটি খাতে আশার আলো শেখ হাসিনা আইটি পার্ক ◈ স্পেনের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে আশা টিকিয়ে রাখলো জার্মানি ◈ চীনে শি জিনপিংয়ের পদত্যাগের দাবিতে প্রকাশ্যে বিক্ষোভ ◈ টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌপথে জাহাজ চালু না হলে দ্বীপে ধর্মঘট! ◈ বড় জয় দিয়ে শেষ ষোল নিশ্চিত করলো ক্রোয়েশিয়া ◈ ঘুষ নেওয়ার ভিডিও ভাইরাল, সেই ভূমি কর্মকর্তা বরখাস্ত ◈ ভারত মহাসাগর নিয়ে ১৯ দেশের বৈঠকে চীন, নেই ভারত ◈ জুলুম-নির্যাতন করে জনবিষ্ফোরণ ঠেকাতে পারবে না সরকার: মির্জা ফখরুল ◈ রাজনৈতিক অস্থিরতা ও করোনায় পিছিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর জাপান সফর

প্রকাশিত : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:২৫ রাত
আপডেট : ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ১২:৫৬ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

আজ শুভ মহালয়া, দেবীপক্ষের সূচনা

আজ শুভ মহালয়া, দেবীপক্ষের সূচনা

ঝুমুরী বিশ্বাস: শুভ মহালয়া আজ, পিতৃপক্ষের শেষে দেবীপক্ষের শুরু। একই সঙ্গে শারদীয় দূর্গোৎসবের পুণ্যলগ্নেরও শুরু আজ থেকে। মহালয়ার মাধ্যমে দেবী দূর্গা আজ পা রেখেছেন মর্ত্যলোকে। বছর ঘুরে আবারও উমা দেবী আসছেন তার বাপের বাড়ি। অশুভ অসুর শক্তির কাছে পরাভূত দেবতারা স্বর্গলোকচ্যুত হওয়ার পর চারদিকে শুরু হয় অশুভ শক্তির প্রতাপ। এই অশুভ শক্তিকে বিনাশ করতে একত্র হন দেবতারা। তখন দেবতাদের তেজরশ্মি থেকে আবির্ভূত হন অসুরবিনাশী দেবী দুর্গা। মহালয়ার সময় ঘোর অমাবস্যা থাকে। তখন দূর্গা দেবীর মহাতেজের আলোয় সেই অমাবস্যা দূর হয়। আর প্রতিষ্ঠা পায় শুভশক্তি।

হিমালয়ের কৈলাশ থেকে সুদূর পথ পাড়ি দিয়ে প্রতিবছর দূর্গা দেবী আসেন সমতল ভূমির এই বাংলায়। সঙ্গে নিয়ে আসেন গণেশ, কার্তিক, লক্ষ্মী আর সরস্বতীকে। প্রতিবছরের শরৎকালে দেবী দূর্গার এই আগমন হয় নিজ ভূমিতে। বিশুদ্ধ পঞ্জিকামতে, এবার দূর্গা দেবী আসছেন গজে, যার অর্থ শস্যপূর্ণা বসুন্ধরা। উমা কৈলাসে ফিরবেন নৌকায় যার শস্য বৃদ্ধি ও জল বৃদ্ধি। 

হিন্দু শাস্ত্রমতে, দেবী দূর্গার আবাহনই মহালয়া হিসেবে পরিচিত। মহালয়া দূর্গোৎসবের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। ষষ্ঠী পূজার মাধ্যমে শারদীয় দূর্গোৎসবের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হলেও মূলত আজ থেকেই পূজারীরা দূর্গা মায়ের আগমন ধ্বনি শুনতে পাবেন। হিন্দু ধর্মমতে, মহালয়ার দিনে দেব-দেবীকুল দূর্গাপূজার জন্য নিজেদের জাগ্রত করেন। শাস্ত্রীয় বিধান মতে, মহালয়ার দুটি পর্ব রয়েছে, একটি পিতৃপক্ষ, অন্যটি দেবীপক্ষ। অমাবস্যা তিথিতে পিতৃপক্ষের শেষ হয় আর প্রতিপদ তিথিতে শুরু হয় দেবী পক্ষের। আজ মহালয়া দিয়ে আরম্ভ হচ্ছে সেই দেবীপক্ষ। 


এদিন গঙ্গাতীরে প্রার্থনা করে ভক্তরা মৃত আত্মীয়স্বজন ও পূর্বপুরুষদের আত্মার মঙ্গল কামনা করেন। আজ ভোর থেকে সারাদেশে স্থায়ী অস্থায়ী দূর্গা মণ্ডপগুলোতে চণ্ডীপাঠ ও পূজা অর্চনার মাধ্যমে দূর্গা দেবীকে আহ্বান করা হবে। এভাবেই আজ মর্ত্যলোকে, আবাহন ঘটবে দেবী দূর্গার। ভক্তদের কন্ঠে উচ্চারিত হবে, যা দেবী সর্বভূতেষু মাতৃরূপেন সংস্থিতা, নমস্ত্যৈ নমস্ত্যৈ নমস্ত্যৈ নমঃ নমঃ। 


পূজা উদযাপন পরিষদের সংবাদ সম্মেলন
শনিবার ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরের মিলনায়তনে সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জে. এল ভৌমিক বলেন, গত বছরের সহিংসতার কথা মাথায় রেখে এবছর সরকার চাচ্ছে কোনও অবস্থাতেই যেন কোনও অঘটন না ঘটে। আইনপ্রয়োগকারী সংস্থা গত বছরের তুলনায় এ বছর অনেক বেশি সক্রিয়। আমরা মনে করি, আমাদের ৩২ হাজার ১৬৮টি মন্দির সুরক্ষা দেওয়া খুব কঠিন। তাই আমরা এবছর প্রত্যেক মন্দিরে স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করছি, যারা রাতেও পাহারা দেবে। সম্পাদনা: সালেহ্ বিপ্লব 

 

  • সর্বশেষ